শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ০৩:৩৫ পূর্বাহ্ন

প্রতারণার অভিযোগে ভুয়া এনজিও কর্মকর্তা গ্রেপ্তার

উখিয়া সংবাদ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম :: সোমবার, ১৮ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৬৬

রাজধানীর বিমানবন্দর থানা এলাকা থেকে বিদেশি এনজিও কর্মকর্তা সেজে প্রতারণা করার অভিযোগে মো. রুবেল আহম্মেদ (৩৬) নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম বিভাগ। ঢাকা মহানগর পুলিশের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগের অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার মো. ইফতেখায়রুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম বিভাগ সূত্রে জানা যায়, গ্রেপ্তারকৃত রুবেল সহযোগীদের নিয়ে কুষ্টিয়া জেলার খোকসা থানার বেতবাড়ীয়া ইউনিয়ন পরিদর্শন করেন। জলবায়ুজনিত কারণে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার ও দরিদ্র লোকের তালিকা প্রস্তুত এবং তাদের আবাসন প্রদান, স্কুল নির্মাণ, নদী ভাঙন রক্ষাবাদ নির্মাণ, কৃষকদের মাঝে ডিপ টিউবওয়েল প্রদান ও দুঃস্থদের চিকিৎসা সাহায্যসহ বিভিন্ন সেবামূলক আর্থিক অনুদানের ব্যবস্থা করার কথা বলে ১৭ কোটি ৩৩ লাখ টাকার প্রজেক্ট প্রস্তুত করেন। সেই কাজের জন্য প্রজেক্ট পার্টনার, প্রজেক্ট ও স্কুলে শিক্ষক নিয়োগের প্রলোভন দেখিয়ে এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের ভুয়া ফান্ডের টাকা ছাড়ের জন্য ২.৫% হিসেবে ট্যাক্স ও অন্যান্য খরচ বাবদ ৪৩ লাখ টাকাসহ কোটি টাকার উপরে প্রতারণা করে আত্মগোপন করেন।

এমন ঘটনায় ভুক্তভোগীর অভিযোগের ভিত্তিতে গত ৬ জানুয়ারি বিমানবন্দর থানায় একটি মামলা দায়ের হয়। পুলিশ জানায়, ওই মামলা তদন্তকালে গোয়েন্দা তথ্য ও প্রযুক্তির মাধ্যমে অভিযুক্তের অবস্থান সম্পর্কিত তথ্য সংগ্রহ করে। গতকাল রোববার বিমানবন্দর থানার উত্তরা ১৮ নম্বর সেক্টর থেকে রুবেল আহম্মেদকে গ্রেপ্তার করে ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম বিভাগের ইকোনমিক ক্রাইম অ্যান্ড হিউম্যান ট্রাফিকিং টিম।

এ সময় তার হেফজত থেকে প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত ল্যাপটপ, একাধিক মোবাইল, সিমকার্ড, ভ্যাট প্রদানের নির্দেশপত্র, কোটেশন গ্রহণপূর্বক কাজের অনুমোদন প্রদানের কপি, অনলাইনে কর পরিশোধ পদ্ধতি সংক্রান্ত ভুয়া কাগজপত্র, বিভিন্ন লোকের ছবি ও এনআইডির ফটোকপি সংযুক্ত করা অনুদান প্রাপ্তির ফাঁকা আবেদন ফরম, বিভিন্ন লোকের ছবি ও এনআইডির ফটোকপি সংযুক্ত করা চিকিৎসার জন্য সাহায্যের আবেদন, দুঃস্থদের ঘর প্রদানের নামের তালিকা, সিসিআইসি প্রজেক্ট বাস্তবায়ন কমিটির তালিকা, ইলেক্ট্রনিক্স পণ্য ক্রয়ের অনুমোদনপত্র ও বিল ভাউচার সহ বিভিন্ন কাগজপত্র উদ্ধার করা হয়।

প্রাথমিক তদন্তে সম্পর্কে পুলিশ সূত্র জানায়, সাধারণ মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করাই রুবেলের পেশা। মানুষের বিশ্বাস স্থাপনের জন্য যাতায়াতের ক্ষেত্রে তিনি হেলিকপ্টার ব্যবহার করতেন। কুষ্টিয়া, মাগুরা, খাগড়াছড়িসহ কয়েক জেলা হতে কয়েক কোটি টাকা প্রতারণার মাধ্যমে হাতিয়ে নিয়েছেন রুবেল।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2019 UkhiyaSangbad
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbaukhiyasa15