সোমবার, ১৭ মে ২০২১, ০১:২৩ পূর্বাহ্ন

উখিয়ায় বনভূমি দখল করে দুই ইয়াবাকারবারীর বহুতল ভবন নির্মাণ

নিজস্ব প্রতিবেদক ::
  • আপডেট টাইম :: শনিবার, ১ মে, ২০২১
  • ৬৭

বনভূমির জায়গা দখল করে উখিয়ার কুতুপালংয়ে স্থানীয় দুই শীর্ষ ইয়াবাকারবারী স্থাপনা গড়ে তুলছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এরই মধ্যে সদর রেঞ্জের আওতাধীন কুতুপালং এলাকার সংরক্ষিত বনভূমি দখল করে কোটি টাকা ব্যয়ে গত এক মাসেরও বেশি সময় ধরে গড়ে তোলা হচ্ছে একটি বহুতল ভবন। স্থানীয়দের অভিযোগ, বন রেঞ্জের নাকের ডগায় এই ভবন নির্মাণকাজ চললেও বনকর্মীদের ভূমিকা রহস্যজনক। এভাবে একদিকে রোহিঙ্গারা যেভাবে বনভূমি দখল করে বস্তি গড়ে তুলছে, তাতে মারাত্মক হুমকির মুখে পড়েছে পরিবেশ। তার ওপর এই ইস্যুর সুযোগ নিয়ে স্থানীয় ইয়াবাকারবারী ভূমিদস্যুরা বনের জায়গা দখল করে স্থাপনা নির্মাণ চালিয়ে গেলে ভবিষ্যতে উখিয়ায় সামাজিক বনায়ন চরম সংকটের মুখে পড়বে।

সরেজমিন কক্সবাজার – টেকনাফ সড়কের কুতুপালং হাইওয়ে পুলিশের অফিসের পাশে গিয়ে দেখা যায়, ২০/২৫ শ্রমিক একটি বহুতল ভবন নির্মাণের কাজ করছেন। তারা জানান, নির্মাণাধীন এ ভবনের মালিক স্থানীয় দুই ইয়াবাকারবারী সুশীল বড়ুয়া ও রহমত উল্লাহ (কালু)। গত এক মাস তারা এই ভবন নির্মাণের কাজ করছেন। কাজ শেষ হতে আরও এক মাসের মতো সময় লাগবে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, বন বিভাগের সংরক্ষিত প্রায় কয়েক একর ভূমি দীর্ঘদিন দু ইয়াবাকারবারীর দখলে রয়েছে। সেখানে তারা একটি পাকা ঘর নির্মাণ করলেও বন রেঞ্জের কোনো কর্মকর্তা তাতে বাধা দেননি। রেঞ্জ-সংশ্নিষ্টদের মোটা অঙ্কের টাকায় ম্যানেজ করা হয়েছে। যে কারণে কেউ অভিযোগ করলেও তারা কর্ণপাত করছেন না।

এ বিষয়ে উখিয়ার বিট অফিসার বজলুল রশিদকে জিঙ্গেস করা হলে সেই বনভুমিতে পাকা দালান তৈরির বিষয় এড়িয়ে যায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2019 UkhiyaSangbad
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbaukhiyasa15