বুধবার, ১৮ নভেম্বর ২০২০, ০৬:১০ অপরাহ্ন

প্রধান শিক্ষকের বেতন ১১তম গ্রেডে, একধাপ এগিয়েছে সহকারীরা

ডেস্ক রিপোর্ট :
  • আপডেট টাইম :: মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর, ২০১৯
  • ১০৪
প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের লোগো (ছবি : সংগৃহীত)

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বেতন স্কেলে পরিবর্তন আনা হয়েছে। সেখানে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সব প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকদের মধ্যে বিরাজমান বেতন বৈষম্য নিরসন করেছে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগ। যেখানে প্রধান শিক্ষকের বেতন ১১তম গ্রেডে, একধাপ এগিয়েছে সহকারী শিক্ষকরা।

নতুন নির্দেশনা অনুযায়ী, ২০১৫ সালের শিক্ষক জাতীয় বেতন স্কেলে অনুসারে এখন থেকে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সব প্রধান শিক্ষক ১১তম গ্রেডে (১২৫০০ থেকে ৩০২৩০ টাকা) এবং সব সহকারী শিক্ষক ১৩তম গ্রেডে (১১০০০ থেকে ২৬৫৯০ টাকা) বেতন পাবেন।

নতুন কাঠামোতে বেতন গ্রেডে একধাপ এগিয়ে গেলেন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকরা।

বেশ কিছুদিন ধরে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত এবং প্রশিক্ষণবিহীন সহকারী শিক্ষকেরা বেতন বৈষম্য নিরসনে আন্দোলন করে আসছিলেন। তারা এই দাবিতে আসন্ন প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষাও বয়কটের হুমকি পর্যন্ত দিয়েছিলেন। পরে বেতন বৈষম্য নিরসনে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় গত ২৮ অক্টোবর অর্থ মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠায়।

গত ৭ নভেম্বর শিক্ষকদের বেতন বৈষম্য নিরসন করে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগের বাস্তবায়ন অনুবিভাগের বাস্তবায়ন-১ অধিশাখা থেকে এ সংক্রান্ত চিঠি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিবের কাছে পাঠানো হয়।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগের এই চিঠির পর প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও প্রশিক্ষণবিহীন সব প্রধান শিক্ষক ও সব সহকারী শিক্ষকদের বেতনের কোনো বৈষম্য থাকল না।

২০১৫ সালের জাতীয় বেতন স্কেলে বর্তমানে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সব প্রধান শিক্ষকদের ১১তম গ্রেডে বেতন স্কেল ১২৫০০ থেকে ৩০২৩০ টাকা ও প্রশিক্ষণবিহীন প্রধান শিক্ষকদের ১৪তম গ্রেডে বেতন স্কেল ১১৩০০ থেকে ২৪৬৮০ টাকা ছিল।

বর্তমানে বেতন বৈষম্য নিরসন করে অর্থ বিভাগ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত এবং প্রশিক্ষণবিহীন উভয় ক্ষেত্রেই প্রধান শিক্ষকদের ১১তম গ্রেডে বেতন স্কেল ১২৫০০ থেকে ৩০২৩০ টাকা নির্ধারণ করে দিয়েছে।

অপরদিকে, ২০১৫ সালের জাতীয় বেতন স্কেলে বর্তমানে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সহকারী শিক্ষকদের ১৪তম গ্রেডে বেতন স্কেল ১০২০০ থেকে ২৪৬৮০ টাকা ছিল ও প্রশিক্ষণবিহীন সহকারী শিক্ষকদের ১৫তম গ্রেডে বেতন স্কেল ৯৭০০ থেকে ২৩৪৯০ টাকা ছিল।

এখন থেকে অর্থ বিভাগ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত এবং প্রশিক্ষণবিহীন সহকারী শিক্ষকদের উভয় ক্ষেত্রেই ১৩তম গ্রেডে বেতন স্কেল ১১০০০ থেকে ২৬৫৯০ টাকা নির্ধারণ করে দিয়েছে।

অর্থ বিভাগের ওই চিঠিতে বলা হয়েছে, প্রশাসনিক মন্ত্রণালয়ের মঞ্জুরি আদেশ জারির তারিখ থেকে শিক্ষকদের উন্নীত বেতন গ্রেড কার্যকর হবে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (বিদ্যালয়) মো. বদরুল হাসান বাবুল জানান, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বেতন বৈষম্য নিরসন করতে অর্থ বিভাগে চিঠি পাঠানো হয়েছিল।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2019 UkhiyaSangbad
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbaukhiyasa15