মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০১:১৭ পূর্বাহ্ন

এসপি মাসুদকে বিপিএম পদকের জন্য মনোনীত করে প্রজ্ঞাপন

মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী ::
  • আপডেট টাইম :: বৃহস্পতিবার, ২ জানুয়ারী, ২০২০
  • ৩৯

সাহসিকতা, বীরত্বপূর্ণ অবদান, দৃষ্টান্তমূলক সেবার স্বীকৃতি স্বরূপ কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এ.বি.এম মাসুদ হোসেন বিপিএম আবারো সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় পদক বিপিএম (বিপি :৭৫০৫১০৫০৭৯) (বাংলাদেশ পুলিশ মেডেল) পদক এর জন্য চুড়ান্তভাবে মনোনীত করে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। ‘সেবা’ ক্যাটাগরীতে বিপিএম পদকের জন্য তাঁকে মনোনীত করা হয়। বাংলাদেশের ৬৪ জেলার মধ্যে একমাত্র কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এ.বি.এম মাসুদ হোসেন বিপিএম এই রাষ্ট্রীয় পদকের জন্য চূড়ান্তভাবে মনোনীত হয়েছেন। বাকী ৬৩ জেলার কোন এসপি এবার বিপিএম কিংবা পিপিএম পদকের জন্য মনোনীত হননি। ৬৪ জেলার এসপি’দের একমাত্র প্রতিনিধি যেন কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এ.বি.এম মাসুদ হোসেন বিপিএম। বৃহস্পতিবার ২ ডিসেম্বর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের এক প্রজ্ঞাপন মূলে কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এ.বি.এম মাসুদ হোসেন বিপিএম সহ ১১৮ জনকে এই মনোনয়ন দেওয়া হয়। জারি করা প্রজ্ঞাপনে বিপিএম (সেবা) ক্যাটাগরীতে মনোনয়ন পাওয়া ২৮ জনের মধ্যে পুলিশ সুপার এ.বি.এম মাসুদ হোসেন বিপিএম-এর নাম ১৪ নাম্বার ক্রমিকে রয়েছে।

অপরাধ দমনে পুলিশিং অপারেশনে ব্যাপক সাফল্যের স্বীকৃতিস্বরূপ সাহসিকতা ক্যাটাগরিতে শ্রেষ্ঠত্বের জন্য পুলিশ সুপার এ.বি.এম মাসুদ হোসেন বিপিএম-কে রাষ্ট্রীয়ভাবে এই জাতীয় পুরস্কার প্রদান করা হচ্ছে। কক্সবাজারের ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার ও জেলা পুলিশের মুখপাত্র মোহাম্মদ ইকবাল হোসাইন বিষয়টি নিশ্চিত করে এ সিবিএন-কে বলেছেন-সাহসিকতা ক্যাটাগরিতে কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এ.বি.এম মাসুদ হোসেন বিপিএম’কে ইতিমধ্যে বিপিএম (সেবা) পদক প্রদানের জন্য পুলিশ সদর দপ্তেরর জাতীয় জুরিবোর্ড কর্তৃক চুড়ান্তভাবে মনোনীত করে বৃহস্পতিবার ২ জানুয়ারি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

জাতীয় পুলিশ সেবা সপ্তাহ-২০২০ উপলক্ষে আগামী ৫ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঢাকাস্থ রাজারবাগ পুলিশ হেডকোর্য়াটারে জাতীয় পুলিশ প্যারেড ও কুচকাওয়াজের সালাম গ্রহন করতে সদয় সম্মতি দিয়েছেন। সেই অনুষ্ঠানেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজেই আনুষ্ঠানিকভাবে কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এ.বি.এম মাসুদ হোসেন সহ পুলিশের রাষ্ট্রীয়ভাবে জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত ১২৮ জনকে এই গৌরবময় সম্মাননা প্রদান করবেন বলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) ও বর্তমানে ভারপ্রাপ্ত এসপি’র দায়িত্বে থাকা মোহাম্মদ ইকবাল হোসন জানিয়েছেন। পরদিন ৬ জানুয়ারি আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম (বার) দেশের সর্বোচ্চ মাদক উদ্ধারকারী জেলা ও দেশের সর্বোচ্চ অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারকারী জেলা হিসাবেও কক্সবাজার জেলা পুলিশের কর্ণধার এসপি এ.বি.এম মাসুদ হোসেন বিপিএম-কে এ বিশাল সাফল্যের জন্য আলাদা ২ টি আইজিপি পদক, সনদ ও সম্মাননা প্রদান করবেন। তিনি জানান-এ বিশাল অর্জন শুধুমাত্র জেলা পুলিশ বিভাগের জন্য নয়, পুরো কক্সবাজার জেলাবাসীর জন্য এটা বিরাট সম্মান ও মর্যাদার বিষয়। কক্সবাজার জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) রেজওয়ান আহমেদ বলেন, এ বিরল সম্মান একদিকে, কক্সবাজার জেলা পুলিশের নিয়মতান্ত্রিক কর্মে উৎসাহ ও গতিশীলতা বাড়াবে এবং অন্যদিকে, পুলিশের প্রতি সাধারণ মানুষের আস্থা নিঃসন্দেহে অনেক বৃদ্ধি পাবে বলে তিনি সিবিএন এর কাছে দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

এ কৃতিত্বপূর্ণ পদক প্রাপ্তির মাধ্যমে এ.বি.এম মাসুদ হোসেন বিপিএম তাঁর নামের শেষে (বার) শব্দটি লিখবেন। অর্থাৎ ‘বার’ শব্দটির মাধ্যমে একাধিকবার এই বিপিএম পদক পেয়েছেন বুঝানো হবে। ‘বিপিএম’ শব্দের পাশাপাশি ‘পিপিএম’ শব্দটি লিখবেন। এছাড়া, বাংলাদেশ পুলিশের বাৎসরিক ‘মহোৎসব’ নামে খ্যাত পুলিশ সপ্তাহ ২০২০ এ দেশের সর্বোচ্চ মাদক উদ্ধারকারী জেলা ও দেশের সর্বোচ্চ অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারকারী জেলা হিসাবেও পৃথক ২ টি আইজিপি পদকের জন্য মনোনীত হয়েছে কক্সবাজার জেলা পুলিশ। পদক প্রাপ্তরা রাষ্ট্রীয় অর্থ সুবিধা এবং প্রাপ্ত উপাধি নিজ নিজ নামের শেষে ব্যবহার করতে পারবেন। পদোন্নতি ও প্রাইজ পোস্টিং এ এই পদক গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করা হয়। এসপি এ.বি.এম মাসুদ হোসেন বিপিএম কক্সবাজারে যোগদানের মাত্র ১৫ মাসের মধ্যে ২ টি জাতীয় পর্যায়ের পদক প্রাপ্তি ও ৪ টি আইজিপি পদক প্রাপ্তির সৌভাগ্য অর্জন করলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2019 UkhiyaSangbad
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbaukhiyasa15