সোমবার, ১৭ মে ২০২১, ১২:৪৯ পূর্বাহ্ন

করোনাভাইরাস : লন্ডনে ৪০ হাজার গণকবর খোঁড়ার প্রস্তুতি

ডেস্ক রিপোর্ট :
  • আপডেট টাইম :: বৃহস্পতিবার, ৫ মার্চ, ২০২০
  • ৭২

চীনের উহান শহর থেকে ছড়িয়েপড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস থাবা বসিয়েছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে। চীন থেকে মধ্যপ্রাচ্য আর ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে প্রচুর মানুষ, মৃত্যুর সংখ্যাও বাড়ছে দিন দিন।

যুক্তরাজ্যেও হানা দিয়েছে করোনাভাইরাস। ব্রিটেনের লন্ডনে এই ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে নানা পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে স্থানীয় প্রশাসন। কিন্তু, অবাক করার মতো তথ্য হলো- দেশটির সরকার ধারণ করছে, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে মারা যেতে পারে ৪০ হাজার নাগরিক। সেই মোতাবেক গণকবর খোঁড়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য ডেইলি স্টার একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে এ তথ্য জানিয়েছে। তারা বলছে, সরকারের নেওয়া পরিকল্পনার কিছু দাপ্তরিক নথি তারা হাতে পেয়েছে। এর শিরোনাম রাখা হয়েছে ‘লন্ডন এক্সট্রা ডেথস ফ্রেমওয়ার্ক’। লন্ডনে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঘটলে সরকার যেসব পদক্ষেপ নেবে, সেগুলো লিপিবদ্ধ আছে ওই নথিতে।

ডেইলি স্টার অনলাইনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, লন্ডনে করোনাভাইরাসের থাবায় মৃত্যু হতে পারে ৪০ হাজার নাগরিকের। যদিও প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে নানা উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তবুও গণকবর খোঁড়ার পরিকল্পনা করছে সরকার। সামরিক বাহিনী দ্বারা এই পরিকল্পনার বাস্তাবায়ন করা হতে পারে বলে উল্লেখ করা হয়েছে নথিতে।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রশাসনের ওই দাপ্তরিক নথিতে উল্লেখ করা হয়েছে- করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেশে বড় আকারের মহামারী ছড়াবে। তাই ‘লন্ডন রেসিলিয়েন্স পার্টনারশিপ (এলআরপি)’ কর্তৃক এই পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। জরুরি পরিকল্পনার আওতায় ‘লন্ডন রেসিলিয়েন্স টিমও (এলআরটি)’ গঠন করা হয়েছে।

করোনাভাইরাসের আঘাতের বিষয়টিতে লন্ডন ‘গুরুত্বপূর্ণ বিষয় বা ইভেন্ট’ হিসেবে দেখছে। এ ছাড়া পরিকল্পনায় কিছু বিকল্প রাখছে সরকার। বিষয়গুলোও নথিতে উল্লেখ আছে।

আজ বুধবার ব্রিটেনের মন্ত্রিপরিষদ থেকে স্থানীয় প্রশাসন ও কর্তৃপক্ষকে বিশেষ নির্দেশনা দিয়েছে। এতে করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবে অনাকাঙ্খিত পরিমাণ মৃত্যু ঘটলে কী পরিকল্পনা নেওয়া হবে, সে ব্যাপারে বলা হয়েছে।

‘লন্ডন এক্সট্রা ডেথস ফ্রেমওয়ার্ক’ শিরোনামের ওই নথিতে করোনাভাইরাস সংক্রান্ত সঙ্কটের ক্ষেত্রে সম্ভাব্য বিকল্পগুলোর কথা বলা হয়েছে। করোনাভাইরাসে মারাত্মক বিপর্যয় ঘটলে কী ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হতে পারে, তা লেখা আছে নথিতে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ৪২ পৃষ্ঠার এই নথিতে করোনাভাইরাসে গণমৃত্যুর ইস্যুটি সামনে এসেছে। প্রায় ৪০ হাজার নাগরিক মারা যেতে পারেন করোনাভাইরাসের সংক্রমণে। কেউ মারা গেলে দেহগুলো কীভাবে এবং কবর দেওয়া যেতে পারে তা বলা হয়েছে নথিতে। বিরূপ পরিস্থিতিতে লন্ডন কর্তৃপক্ষের জন্য প্রস্তাবিত সমাধানের বিষয়টি উল্লেখও করা হয়েছে।

নথি অনুযায়ী লন্ডনে করোনাভাইরাস মহামারি রূপ ধারণ করলে ‘সম্ভাব্য খারাপ পরিস্থিতিতে’ সপ্তাহে ১০৫৮ জন মারা যেতে পারেন। অতিরিক্ত মৃত্যুর ঘটনা ঘটলে স্থানীয় কর্তৃপক্ষকে মরদেহ দাফন করতে বিভিন্ন বড় স্থানকে বিবেচনায় রাখতে পারে। এক্ষেত্রে গুদাম এবং হ্যাঙ্গারগুলিকেও বিবেচনায় রাখা হতে পারে ডেইলি স্টারের প্রতিবেদনে বলা হয়।

ওই নথিতে আরও বলা হয়েছে, আইনের আওতায় থেকে মরদেহগুলো দ্রুত দাফন বা আগুনে পুড়িয়ে ফেলার ব্যবস্থা করা হবে। মরদেহগুলো সরিয়ে নিতে সামরিক বাহিনীর সহায়তা প্রয়োজন হতে পারে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2019 UkhiyaSangbad
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbaukhiyasa15